Categories
কবিতা

সুদীপ ব্যানার্জীর কবিতা

…অথবা পবিত্র হলাম


অন্ধত্ব মেলবো রোদে, এই তো রটনার কান
জিরোনো চৈত্র-সকাল
না কি, বলেছি, ত্রুটি,
কী তোমার নাম?

এই মওকায় ক্রিম মেখেছেন, সশরীরে,
রূপোলি ফিতেতে, ঘণত্বে মুখ লাল
যেন হরণের ছল
চমৎকার ও পানসে দুপুরে…


ফায়দার নোটটি নিয়েছেন, নিতেই হয়,
দস্তুর, সেকেলে, আর তার ঘাম ঝরা
নেহাতই আবেগ, অনলাইন সেল
লাইনে সোহাগ ও মিটমিটি তার লুঠ

জড়িয়ে এ যাওয়াটি
বনেদি বেহাগ, হেডফোন রসিকের…


গিলছেন, ছাপ ছাপার হাসিটি
তুচ্ছ আর মসৃণ

এই তো সান— সেট না কি ?

ইনকাম থেকে দাবিটি কেটেছেন
বিপ্লব নামে
ক’টা যে লোহিতকণা হাসে
ঘাম আর শুভেচ্ছায়
শুকনো ঘাসে

হাঁপানোর

একান্ত, তিনি খুঁটছেন শ্রমজীবী দাগ…


ছোটো চুমুক বা পর্দার খসে আসা
ছেঁড়া পটে হলুদের দাগ

আর

রিসিভারের সামান্য ভূমিকা
ভুলেছে বাহার,
বন্ধ্যা তালিকা

এ চারণভূমিতে
হাত নাড়তে নাড়তে
আপনি মিলিয়ে যাচ্ছেন, কুয়াশা…


“মারহাবা” তার রব
আর প্লাস্টিক আমার গণতন্ত্র


তারপর আমরা পিরান্ডেলা পড়ব অবভিয়াস
গাজনের ধুলো থেকে ধুঁধুলের বোঁটায়
লিখে রেখে বিপদজনক উত্তাপ
ড্রপসিন ফুঁটো করে দেব

ওস্তাদ, আমরাই জল্লাদ…

4 replies on “সুদীপ ব্যানার্জীর কবিতা”

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *