Categories
কবিতা

সুদীপ্ত চ্যাটার্জীর গুচ্ছকবিতা

আঙুল সিরিজ

বৃদ্ধাঙ্গুলি

তুমি ভালো ভাবেই জানো, অল্প বয়সেই চুলে পাক ধরেছে
তাই বলে রাখছি: আমার সাথে ইয়ার্কি ছেড়ে,
ভেবে চিন্তে কথা বলো
তুমি শাসক অথবা বিরোধী— যেই হও!

Categories
গল্প

নীহারুল ইসলামের গল্প

খোদার মর্জি

সিলেপচিতে হাত ধোওয়াতে গিয়ে সামান্য একটু হাতে হাত ছোঁয়া। নসিবুনের মগজে যেন কারেন্টের শক লাগে। শরীরে শিহরণ খেলে যায়। লজ্জা পায়।

Categories
কবিতা

অর্ণব রায়ের গুচ্ছকবিতা


রাক্ষসবর্গে জন্ম। তার সন্ধ্যাতারায় দাগ ছিল করতলে জরুল,
মুকুল
শুকায়ে রয়েছে তারপর থেকে, ঝরে না, বর্ষে বর্ষে ফল,
ধরে না,
গাছপালা আপামর শুধুমাত্র ভীত স্মৃতি হয়ে

Categories
কবিতা

অত্রির গুচ্ছকবিতা

ইঁদুরমঙ্গল ও টম হ্যাঙ্কস


অসহায় খ্রিস্টকে কোমরভরতি জলে নামিয়ে দাও। ভাঙা ইংরেজি। ঠোঁটের জাহাজ। পশুজন্ম। ফেরিঘাটে হাহাকারময় ট্রান্সপোর্টেশন। সকালের ট্রেনে তুমি চলে গেলে। এখন তুমি কবিতা হয়ে মাংসের বক্সে যাও।

Categories
কবিতা

বিশ্বদেব মুখোপাধ্যায়ের গুচ্ছকবিতা

ঠাকুমা

হেমন্ত শেষের রোদ্দুর
ক্রমশ নরম হয়ে আসে।
বাতাসে শীতের মৃদু সুর
ভাসিয়ে ধুনুরি যায় আসে।

Categories
কবিতা

বৈশাখী রায়চৌধুরীর গুচ্ছকবিতা

নদীকেন্দ্রিক

জানালা জুড়ে স্নানঘর
কে যেন খুলে দিয়ে গেছে কলঘরের জ্যোোৎস্না

ভেসে গেছে প্রলাপ
অসুখ রাঙানো উঠানে শুশ্রূষা নিয়ে ফোটে বেদানা বাগান

Categories
কবিতা

অভিজিৎ বেরার গুচ্ছকবিতা

লকডাউনের কবিতা 

সংক্রমণ

কখন যে চলে গেছ, ডাক্তার দেখে বলে—
ঘণ্টাখানেক…
ভাড়াটে মেয়েটি এসে জল দিয়েছিল
বুঝিনি তখনও লেশ।

Categories
কবিতা

শানু চৌধুরীর গুচ্ছকবিতা

টিমবুকটু
ঋণ – Timbuktu journey to the empire of knowledge


বালির ভিতর ডুবে আছে চটি-জোৎস্না
যে জোৎস্না লুকিয়ে রেখেছিল সাহারার প্রবেশটুকু
সেখানে প্রচুর আলখাল্লা হতে কে যেন দ্যাখে

Categories
অনুবাদ কবিতা

শার্ল বোদল্যেরের তিনটি কবিতা

মূল ফরাসি থেকে অনুবাদ: যশোধরা রায়চৌধুরী

আলোকস্তম্ভ

রুব্যাঁস, বিস্মৃতিস্রোত, আলস্যের সাজানো বাগান
রক্তমাংসে গড়া শীতল বালিশ— যেইখানে নেই প্রেমের আহবান
সেইখানে ছলাচ্ছল তবু, নেয় ভাসিয়ে জীবন

Categories
কবিতা

বাসব মণ্ডলের গুচ্ছকবিতা

শহর


ঘোড়া লাগাম আর
একটা স্বপ্ন
হৃদয়ের প্রত্যেকটি ধমনীই
এক-একটা শ্যামবাজার