By Editor Editor

সৌমনা দাশগুপ্তের কবিতা

ছায়াশলাকার ঘর

অ্যাসিডবৃষ্টি। ভিজে যাচ্ছে মহাফেজখানা। দেহ এক হাড়ের দলিল। দেহ এক অস্থাবর ভূর্জপত্র। সেঁকে নাও। তুলো উড়িয়ে দিতে দিতে হাসিতে ভেঙে পড়ছে বালিশ। Read more “সৌমনা দাশগুপ্তের কবিতা”

Spread the love
By Editor Editor

সুমন বন্দ্যোপাধ্যায়ের কবিতা

উন্মাদের দিনলিপি


শীতঘুমের ভেতর জোর করে ঢুকে যাচ্ছে বিষণ্ণ সানাই। আবহে কেউ কোথাও নেই। জলে ভিজে যাওয়া কয়েকটা দীর্ঘশ্বাস— হাতড়ে হাতড়ে তুলে আনছে মৃত নদীটির যোনিরোম। এ সবই চিত্রকল্প। বালিহাঁসদের পালক দিয়ে তুমিও নিশানা করেছ দিগন্তের রং। Read more “সুমন বন্দ্যোপাধ্যায়ের কবিতা”

Spread the love
By Editor Editor

ন্‌কাতেকো মাসিঙ্গা-র কবিতা

ভাষান্তর: অনিন্দ্য রায়

সৃষ্টিতত্ত্ব

চ্যাপেলে ঢোকার পথে
মোজেইক রয়েছে মেঝেয়

মোজেইক মানে টুকরোদের জুড়ে বানানো একটা ছবি
মোজেইক মানে মোজেসের Read more “ন্‌কাতেকো মাসিঙ্গা-র কবিতা”

Spread the love
By Editor Editor

সেলিম মণ্ডলের কবিতা

পাখি সব করে রব


নাচের স্কুলে তুমি কোন ময়ূর
মেঘ ডাকার আগেই ভুলে যাও পেখম তুলতে?


সেই হাঁড়িচাচাকে কি আজ খুঁজে পাওয়া যাবে Read more “সেলিম মণ্ডলের কবিতা”

Spread the love
By Editor Editor

পঙ্কজ চক্রবর্তীর কবিতা

অভিশাপ

এড়াতে পারি না এই ঝোপঝাড় সবংশ এসেছে। আমার স্নায়ুর ভিতর পায়চারি করে সন্দেহজনক আলো। কাঁটায় কাঁটায় মানুষের মতো প্রত‍্যাখ‍্যান। Read more “পঙ্কজ চক্রবর্তীর কবিতা”

Spread the love
By Editor Editor

সৌমাভের গুচ্ছকবিতা

হ্যারিকেন

বাড়ির প্ৰাচীন হ্যারিকেনটির নাম ছিল শিব,
সাদাসিদে গোলগাল শান্ত সমাহিত সৌষ্ঠব,
ঝুপ করে নেমে আসত সন্ধেবেলায় পড়ার ঘরে,
শিবঠাকুরের চারদিকে আমরা গোল হয়ে বসতাম, Read more “সৌমাভের গুচ্ছকবিতা”

Spread the love
By Editor Editor

প্রীতম বসাকের কবিতা

আমার কবিতা

তিষ্ঠ ক্ষণকাল

তোমার অভিজ্ঞতার পাশে একটা কমলালেবু কতটুকু চোখের জল হয়ে উঠতে পারে। যে-কোনো উপন্যাসের শেষ পাতা পড়ে ফেলা যার অভ্যাস তাকে আর কতটা আহা দিতে পারে পাইন বনের ময়ূর। Read more “প্রীতম বসাকের কবিতা”

Spread the love