By Editor Editor

ঈশিতা দেসরকারের গদ্য

গান

ভোরের আজান শুনতে পাই না আজ একমাস। রেল লাইন পেরিয়ে কুমারডাঙ্গি থেকে বেশ কয়েক বছর চলে এসেছি এ-পাড়ায়। আমার কিশোরীবেলা পর্যন্ত নানাবিধ মেঘমল্লার ছড়িয়ে ছিটিয়ে আছে কুমারডাঙ্গির এধারে ওধারে। ও-পাড়াতে একটা মসজিদ আছে। দীর্ঘদিন রোদে রাখা পেস্তার মতো তার রং। মসজিদের কাঁধ ঘেঁষে জুনিয়ার হাই স্কুল। উলটো দিকে আটচালা ঘর। Read more “ঈশিতা দেসরকারের গদ্য”

Spread the love
By Editor Editor

কৌস্তভ গঙ্গোপাধ্যায়ের গদ্য

১— টুকরো

এক জানলা থেকে আরেক জানলায় যেতে গিয়ে দেখি, ডানার কমতি পড়ছে৷ গুনে গুনে বলা যায় আকাশের মেঘ কতটা শ্রম দিয়ে ঘাম নিংড়েছে৷ ওরা বৃষ্টি হয়ে ঝরে আমি সাগরের মাঝে জলচৌকি নিয়ে নৌকা কাটি৷ তালিবানের মতো এক তীব্র আশ্রয় খুঁজতে গিয়ে পেলাম আরোগ্য নিকেতন৷ যতদূর চোখ যায় রোগী আর হিসেব৷ কতদিন মরুভূমির পাশ কাটিয়ে পেরাতে গিয়ে দেখেছি, উটের শৃঙ্গার৷ Read more “কৌস্তভ গঙ্গোপাধ্যায়ের গদ্য”

Spread the love
By Editor Editor

প্রীতম বসাকের গদ্য

কবির খণ্ড জীবন


এইখানে ব’সো। দুঃখকে কিছুটা দূর থেকে দেখা ভালো। যেমন পাহাড়ের মাথায় জমে থাকা মেঘ দেখতে তুমি পাহাড়ে ওঠোনি কোনোদিন। ওই দেখো ব্রহ্মাণ্ড ঝুলে আছে। ধূলি ধূসরিত সংসার। আর তার মাঝে একটা পাতকুয়ো। নিটোল জল। দরদ দিয়ে টানলে পিপাসার গান শুনতে পাওয়া যায়। Read more “প্রীতম বসাকের গদ্য”

Spread the love
By Editor Editor

শুভশ্রী পালের গদ্য

অ্যাসাইলাম থেকে বলছি ১

যেদিন খুব খিদে পায় আমি টেবিল সাজিয়ে বসি। প্রথমে ফ্রেঞ্চফ্রাই৷ লম্বা লম্বা, সরু সরু। ছাঁকা তেলে ভাজা। তারপর একটু নরম গ্রিল করা খাবার। ঠিক যেন মনে হয় প্যাশনেট চুমু খাওয়ার সময় প্রেমিকের ঠোঁট কামড়ে ধরছি। এরপর লেগপিস। তন্দুরি। বাটিতে মাছের তেলের মতো একটা অংশ, তা দিয়ে ভাত মেখে গোগ্রাসে খাই। Read more “শুভশ্রী পালের গদ্য”

Spread the love
By Editor Editor

কুন্তল কোলের গদ্য

এই দুটো গল্প আমি উৎসর্গ করলাম আমার প্রিয় বাথরুমকে


তুমি অনুভব করো সেই হাগাটা যেটা আমি করে উঠতে পারিনি…

কে যেন পায়ের তলায় জ্বালানো সিগারেট ফেলে চলে গ‍্যাছে— না দেখে ফেলে দিলাম পা— বলে উঠলাম উউউউ— কিছুক্ষণের মধ্যেই চামড়াটা ফুলে গেল— জল জমল তার ভিতর— তৎক্ষণাৎ সেফটিপিন দিয়ে উসকে দিলাম— দু ফোটা জল গড়িয়ে পড়ল মেঝেতে— Read more “কুন্তল কোলের গদ্য”

Spread the love
By Editor Editor

প্রলয় মুখার্জীর গদ্য

ভ্রমণ আমার মেয়ের নাম

মেয়ের দেখা

আজ প্রথম ও কাঁঠাল দেখেছে। ধূসর বাদামি গুঁড়ির গায়ে প্রেত পূর্ণিমার মতো শিশু কাঁঠাল। গুঁড়ির গায়ে গায়ে কণ্টক আরতি। কচি কচি ধুমকেতু নিকষ সন্ধ্যার মতো গুঁড়ির গায়ে লেগে রয়েছে। অজস্র অজস্র। এই আমার তিনমাস পনেরো দিনের মেয়ে। কানে টগরের দুল। সে দেখে ফেলেছে শিশু কাঁঠালের গায়ে দু একটি টুনটুনি লন্ঠন। Read more “প্রলয় মুখার্জীর গদ্য”

Spread the love
By Editor Editor

শুভ্রা মুখার্জীর গদ্য

যৌথথা বা গোপন আঁতাত

একটি সহিংস প্রেমের দৃশ্যে ঢুকে প’ড়ে বোঝা যায় প্রেম ও ঘৃণার মধ্যে বস্তুত পার্থক্য নেই। দু-জনের গায়ের রঙের ওপর লালার সর আড় ভেঙে বসে অপেক্ষা করছে, তীব্রতা ফুরিয়ে গেলে আদিম নিয়মের মতো চেঁছেপুঁছে ফেলে দেবে। ক্রমশ হাইড্রেনপ্রীতি বাড়ে, কবিকে আদর্শ মনে হয়, প্রতিষ্ঠাকে বড়ো কোনো ভুল। Read more “শুভ্রা মুখার্জীর গদ্য”

Spread the love
By Editor Editor

পঙ্কজ চক্রবর্তীর গদ্য

স্মৃতি বিস্মৃতির চেয়ে কিছু বেশি

দূর থেকে দেখি বিস্মৃত লেখককে সামনে রেখে পুনরুদ্ধার প্রকল্প। মাঝে মাঝে সন্দেহ হয়। সাফল্যের একটা অস্ত্র হিসেবেই কি বিস্মৃতির এতখানি গ্রহণযোগ‍্যতা? Read more “পঙ্কজ চক্রবর্তীর গদ্য”

Spread the love
By Editor Editor

দীপ শেখর চক্রবর্তীর গদ্য

মাথার ভেতর এই গানটা বেজেই চলেছে

যেন একটা গান থামছে না। থামাচ্ছি না আমি। বেজেই চলেছে পরপর আবার আবার বেজে চলেছে আর প্রতিটি শব্দ বেজে বেজে একটা অসুস্থতা হয়ে গেছে। সামনের দিকে তাকাই ডান দিকে একটা মন্দির, ঠিক তার সামনে রুগ্ন মেয়েটি চোখের ইশারা করে। আশ্চর্য চোখ তার, মনে হয় আমার বুকের মধ্যে একটা হুঁক লাগিয়ে এমন টান মারলো মনে হল এখুনি গিয়ে খামচে ধরি ওর ঘাড়। Read more “দীপ শেখর চক্রবর্তীর গদ্য”

Spread the love
By Editor Editor

সুবীর সরকারের গদ্য: হাটগঞ্জকোরাস (চতুর্থ পর্ব)

হাটগঞ্জকোরাস (চতুর্থ পর্ব)

৮।

উত্তরবাংলা। এক বর্ণময় ভূখন্ড। আমি উত্তরবাংলাকে দুইভাগে বিভক্ত করি। তিস্তাবঙ্গ আর গৌড়বঙ্গ। আমি তিস্তাবঙ্গের মানুষ। আমি তোরসাদেশের মানুষ। গানভরা নাচভরা উৎসবঘেরা হাটগঞ্জঘেরা সবুজে ভরা এক বহুমাত্রিক জনপদ। Read more “সুবীর সরকারের গদ্য: হাটগঞ্জকোরাস (চতুর্থ পর্ব)”

Spread the love