Categories
প্রবন্ধ

মলয় রায়চৌধুরীর প্রবন্ধ

কবি শম্ভু রক্ষিত: হাংরি আন্দোলন থেকে মহাপৃথিবী

‘তিতীর্ষু’ পত্রিকার শম্ভু রক্ষিত সংখ্যায় (২০১৭) শম্ভু রক্ষিত ‘আমি স্বাধীন’ শিরোনামে লেখাটি শুরু করেছেন: ‘আমি স্বাধীন। আমি হাংরি।’ ঘোষণার মাধ্যমে। ওই প্রবন্ধেই তিনি বলেছেন: “মলয় রায়চৌধুরীদের সাথে পরিচয় হওয়ার ফলে হাংরি জেনারেশনের সাথে আমিও জড়িয়েছিলাম।”

Categories
প্রবন্ধ

অরূপ চক্রবর্তীর প্রবন্ধ

বিস্মৃতির পথে নজরুলের গানের ভাণ্ডার

এক বিস্ময়প্রতিভা কাজী নজরুল। তাঁর সৃষ্টিতে এত বৈচিত্র্য ছড়িয়ে আছে যার এক-একটা বিষয় নিয়েই অনেক কিছু আলোচনা বা লেখার অবকাশ রয়ে গেছে। আমি মুখ্যত তাঁর রচিত গান নিয়ে কিছু কথা আমার মতো করে উল্লেখ করছি।

Categories
প্রবন্ধ

পিয়াস মজিদের শ্রদ্ধার্ঘ্য জ্ঞাপন

অনন্য বসন্তজাতক

আনিসুজ্জামানের ‘স্বরূপের সন্ধানে’ বইটি যে-বয়সে পড়ি তার মর্মবস্তু পুরোপুরি অনুধাবনের বয়স সেটি ছিল না। কুমিল্লা জেলার সরকারি গ্রন্থাগারে এক দুপুরে সদ্য স্কুল-পেরুনো আমি বইটির সাদামাটা নামের মধ্যেই যেন কী এক আকর্ষণ খুঁজে পেয়ে পড়তে শুরু করি। গুরুভার বিষয়ে নদীজল-তরতর ভাষার নিপুণ ব্যবহারই যে আমাকে দিয়ে বইটি শেষ অবধি পড়িয়ে নিয়েছিল তা নিশ্চিত একেবারে।

Categories
প্রবন্ধ

রুদ্র কিংশুকের প্রবন্ধ

র‍্যাচেল কারসন ও নীরব বসন্ত

পৃথিবীর পরিবেশ আন্দোলনের ইতিহাসে র‍্যাচেল কারসন (Rachel Carson, 1907-1964) ও তাঁর ‘সাইলেন্ট স্প্রিং’ (Silent Spring, 1962) বিশেষ গুরুত্বের অধিকারী। এই গ্রন্থ আধুনিক কৃষির রাসায়নিক নির্ভরতার বিপলগুলিকে চিহ্নিত করেই ক্ষান্ত থাকে না চিহ্নিত করে ক্ষান্ত থাকে না, বিকল্প পথ ও বিকল্প জীবনচর্চার দিশা উদ্‌ঘাটন করে।

Categories
প্রবন্ধ

শুভম চক্রবর্তীর শ্রদ্ধার্ঘ্য জ্ঞাপন

দেবেশ রায়: চিন্তা-ভাস্কর্যের নির্মাতা

বিশিষ্ট গদ্যশিল্পী কমলকুমার মজুমদার নিজের গদ্যভাষা প্রসঙ্গে বলতে গিয়ে বলেছিলেন— দৈনন্দিন বহু ব্যবহারে জীর্ণ ভাষা তাঁর গদ্যের মাধ্যম নয়, ভাবপ্রকাশের প্রয়োজনে তাই স্বতন্ত্র ভাষা নির্মাণ করেছেন। বাংলা ভাষায় হাতে গোনা যে-কয়েকজনের গদ্য পাঠ করে আমার ব্যক্তিগতভাবে মনে হয়েছে যে তিনি নিজস্ব ভাষা প্রণেতা, তাঁর দ্যোতনা পূর্বাপররহিত, তাঁদের মধ্যে দেবেশ রায় অন্যতম।

Categories
প্রবন্ধ

রণজিৎ অধিকারীর প্রবন্ধ

হিরণ্ময় শিল্পজগৎ ও রং তুলি হাতে এক দেবদূত

নাটকের প্রসঙ্গে কথা বলতে গিয়ে শিল্পী হিরণ মিত্র বলেছিলেন, ‘যা তাৎক্ষণিক, যা পুনরাবৃত্ত করা যায় না। যা কালেই ভেসে যায়।’ তা-ই হয়তো শ্রেষ্ঠ শিল্প। যা আঁকড়ে ধরে রাখতে চাই, তা-ই আসলে হারাই। এই প্রবন্ধের লেখক হিসেবে আমারই এ-কথাটা আরও একটু স্পষ্ট করা উচিত। শিল্পকে কীভাবে আমরা পাই কিংবা আমরা আবিষ্কার করি? এটা অনেকটা মোকাবিলা করার মতো।

Categories
প্রবন্ধ

রবিউল ইসলামের প্রবন্ধ

তিরুকুরল: আদর্শ জীবন চর্যার এক পাঠ

তামিল সাহিত্যের সবচেয়ে জনপ্রিয় এবং ‘দক্ষিণ ভারতের বেদ’ বলে পরিচিত ‘তিরুকুরল’ আনুমানিক খ্রীঃ পূঃ চতুর্থ শতাব্দীর পূর্বে তিরুবল্লুবর রচনা করেছিলেন। এই নিবন্ধের মূল বিষয়ে যাবার পূর্বে ‘তিরুকুরল’ সম্পর্কে জেনে নেওয়া প্রয়োজন। ‘তিরুকুরল’-এ ১৩৩০টি শ্লোক ধর্ম, অর্থ ও কামকে কেন্দ্র করে লেখা হয়েছে।

Categories
প্রবন্ধ

অনিন্দ্য রায়ের প্রবন্ধ

প্রমথ চৌধুরীর ট্রিওলেট

[আমরা জানি, ট্রিওলেট বা ত্রিওলে হল মূলত আট লাইনের (যদিও ইতিহাসে সাত বা নয় লাইনের ট্রিওলেটের সন্ধান মেলে) এক স্তবকের কবিতা, যার প্রথম লাইনটির চতুর্থ আর সপ্তম লাইনে আর দ্বিতীয়টির অষ্টম লাইনে পুনরাবৃত্তি ঘটে।

Categories
প্রবন্ধ

সম্পর্ক মণ্ডলের প্রবন্ধ

গ্রামীণ বাংলার শিল্পসত্তা ও নারীমননের সুচারু দিকটি উঠে আসে ‘কাঁথা’-র গায়ে

পল্লিকবি জসীমউদ্দিনের বিখ্যাত ‘নকশি কাঁথার মাঠ’ কবিতায় সাজু ও রুপাইয়ের অমর প্রেমকাহিনির মাঝে রুপাইয়ের নিরুদ্দেশের উদ্দেশে সাজু যখন বলে— ‘মা, আমার মরণের পরে যেখানে কবর দেওয়া হবে, সেই কবরের ওপরে যেন এই নকশি কাঁথাখানা বিছিয়ে দেওয়া হয়।

Categories
প্রবন্ধ

ফাল্গুনী ঘোষের প্রবন্ধ

ধাঁধার রূপরেখায় আদি মনস্কতা

গোলকধাঁধা শব্দটি সুপরিচিত। একবিংশ শতকের ফ্ল্যাট কালচারের আবহে দাঁড়িয়ে থাকা আমরা প্রাচীন যুগের শ’দুয়ারি ভাঙাচোরা জমিদার বাড়ির মুখোমুখি হলে মনে মনে অনেকেই বলে ফেলি, কি পেল্লায়! একেবারে গোলকধাঁধা। প্রকৃত অর্থেই গোলোকধাম আশ্চর্য এক ধাঁধা। ধাঁধা কখনও ‘রহস্য’ অর্থে, কখনও জটিলতা অর্থে।