লেখক নয় , লেখাই মূলধন

অনুপম মুখোপাধ্যায়ের গুচ্ছকবিতা

চল এগোই

ওই যে ধানক্ষেত      ওই যে পথ       চল এগোই

১দিন আমাদের সমস্ত জীবন ঘাসের জমির মতো সাংসারিক হবে
আগুন থেকে বেরিয়ে আসবেন নিস্তব্ধ গ্রামীণ কাকিমা

কী যে ঘটেছিল      বিচারসভায় কী যে ঘটে গিয়েছিল

মানুষ যত শক্ত হয় তত তার বুক থেকে খসে যায় অমঙ্গলের চাঙর

তাই নিজে ভয়াবহ হই
দুঃখ থেকে পালাতে পালাতে অশুভকে ছাড়িয়ে যাই আরও পিছনে

আকাশ ফুটো করে বৃষ্টি নামাতে
সূচনার বর্ষা পেরেছে       সমাপ্তির বর্শা পারেনি

***

ওয়ার অ্যান্ড পিস

জীবনের নরম জিভ জীবনের হাঁটু চেটে নেয়
হাজার হাজার বছর       লক্ষ লক্ষ প্রচ্ছদের স্তূপ

সমস্ত হিংস্রতা ছুঁয়ে হাওয়া বয়
হাওয়া বয়

হাওয়ার অত জোর নেই জীবনের সব পাতা উলটে দিতে পারে

আশা ফোটে        ফেটে যায় পোচের মতন
যেন কোনো চামচের নিষ্করুণ আঘাত লেগেছে

জীবনের সারা গায়ে মেখে যায় আশা      চ্যাটচেটে আশা

দাঁত এসে দেখা দ্যায় জাদুঘরের কিউরেটরকে
জীবনের ইতিহাস নাকি দাঁতেরই আবহমানতা

ডলফিনের ইতিহাস কেন নয়
কেন নয় জ্যান্ত কিছু মৌরলার ইতিহাস

মৌরলার জীবনী ১টা      আয় লিখতে বসি

গ্রীষ্মের নরম জল গরমের হাঁটু চেটে নিক

***

১ লম্বা লোক

১ লম্বা লোক      ১ টানা লম্বা লোক
গাছের চেয়ে লম্বা

অসাধারণ লম্বা

মাথায় প্রচুর মেঘ ঠেকে আছে

প্রত্যয়ে      বিস্ময়ে      মতামতে
ওর আকাশকে হাওয়ায় ঘিরে আছে

***

আমি কেন আস্তিক

উজ্জ্বলতার ধারণা নিয়ে ১-১টা অন্ধকারকে জানলা মনে হয়

সারা হোটেলে আমিই প্রথম ১ তলায় নামলাম ব্রেকফাস্ট সারতে

অনেক দূরে অনেক দূরে জাহাজের ইমেজ নিয়ে দিগন্ত তখন খেলছে

সারা জীবন ইস্কুলের প্রার্থনা সংগীতকে আমি সিরিয়াসলি নিয়েছি

ঘণ্টার শব্দ শুনে চোখ তুলে দেখেছি মন্দির খুলেছে

***

একলা মানুষের চড়ক

এই সমাজ      এই সময়      নিকুচি করেছে
আকাশটা সাদা হলে আমাদের এই গাছটাকে আরও সবুজ লাগত

নিকোনো উঠান      ধোলাই খাওয়া জামা
কেউ কি নেই নতুন টি-সার্ট পরে আমার সঙ্গে চড়কের মেলা দেখতে যাবে

আকাশটা সাদা হলে মেলায় যাওয়ার পথটাকে আরও লাল লাগত

কত শুকনো হয়ে গেছে পাতা      কী মিষ্টি গন্ধই না আসছে
কালচে ডাল থেকে মানুষের আনন্দের সুযোগ ঝরে পড়ছে

হাওয়ায় উড়িয়ে দিই লজেন্সের মোড়ক
নিজের সঙ্গে মেলা দেখে আসি

অনুপম মুখোপাধ্যায়ের গুচ্ছকবিতা

আমাদের নতুন বই