মনোজ দে’র গুচ্ছকবিতা

আমাদের ভালোবাসা


তুমি চাও
যথেচ্ছ হওয়ায় উড়ে যাক চোখ

অথচ এখানে আয়না ও দেওয়াল ততটা পৃথক নয়

কথা হয়। বিরক্তিও
আমাদের দেখা ও সাক্ষাতের মাঝে অপ্রিয় প্রযুক্তি বসে থাকে


এছাড়া উপায়ও নেই কোনো
উৎকণ্ঠা জাগে। কখনো অনুশোচনা

তোমার অভীপ্সা বলতে
সামান্য বাড়ির সামনে একফালি বাগান বানানো


ছোটো ছোটো রাত্রি
দীর্ঘকায় বিবর্ণ দুপুর— একথা সকলে জানে

গৃহস্থের খাওয়া শেষে, এঁটো-কাঁটা অবশিষ্টটুকু
বিড়াল বা কাক, কে আজ জিতেছে
হাত ধুয়ে টেলিফোনে বলা

ওপারে, অনিশ্চয়তা চেপে মৃদু হাসি
তারও ভেতরে চাকরি না পাওয়া তৎসম বেদনা


নালিশ যে ভীষণ তা নয়

শীতকাল, দেরিতে স্নান করেছ বলে, মায়ের বকুনি

এত নদী, এত জল
তবুও গাছের নীচে আমাদের প্রথম নৌকা হারালো


রোদ কমে আসে
ভেঙে যাওয়া আলোয় খুঁজেছি পথ

চাঁদ আসে; ডুবে যায়
অসংখ্য জ্যোৎস্নার বনে আমাদের ভালোবাসা হয়

মনোজ দে’র গুচ্ছকবিতা

আমাদের নতুন বই