সৌরভ মাহান্তীর কবিতা

মাথুর


কাল জেগেছ বুঝি সারারাত
চোখের নীচে এখনও
হ্যারিকেনের কালো

কেউ কি এসেছিল
একা
জানালার পাশে?

জুঁই ফুলের এখনও গন্ধে ম-ম করে বিদায়ী সংগীত


‘আমার ফেরার কোনো তাড়া নেই’
একথা বলতেই হেসে উঠল
গলি

ভয় হয়। যদি কোনোদিন
সত্যি সত্যি ফিরে যেতে ভুলে যাই

হে প্রিয়
তোমারই ওষ্ঠ পুড়িয়েছে কত প্রেমিকের ঠোঁট


জোনাকির পেটের মধ্যে সঞ্চিত
যতটুকু ক্ষয়

তোমাকে দিলাম
যত্নে রেখো

একদিন সেখান থেকেই ফুটে উঠবে
প্রতিটি কান্নার বিদায়ী অক্ষর


তোমার পায়ে বেঁধে দিলাম স্মৃতি
মাথায় দিলাম ঘরে ফেরার তাড়া

এখন,
হৃদয়ে যদি রবি ঠাকুরকে দিই

আমি নিশ্চিত,
একদিন সব শুকতারা ধ্রুবতারা হয়ে উঠবে

৫.
প্যাঁচালো ভ্রম বরাবর যতটা উপরে উঠে গেছি
অস্তিত্ববোধে ততই পিছলে গেছে আলো

অন্ধকার একটা গলিপথের মধ্যে
রোজ মাঝরাতে একজন দড়ি হাতে

একা একা
অপেক্ষা করে

ঝিঁঝি ডেকে উঠলেই যেন চলে যেতে হবে
অনেকটা দূরের কোনো দেশে


এ তল্লাটে আর কোনোদিন
তোমার পায়ের ছাপ পড়বে না, জেনেও

আমি অক্ষরের প্রতিটি ভাঁজে ভাঁজে
তোমাকে আলতা পরাই

সৌরভ মাহান্তীর কবিতা

আমাদের নতুন বই