Categories
কবিতা

অনির্বাণ চট্টোপাধ্যায়ের কবিতা

সিরিয়াল কিলারের ফিঙ্গারপ্রিন্ট


খুন করার পরেও
তার থেকে মুক্তি পাইনি

দুর্গন্ধ পেতাম একটা
তার না থাকার দুর্গন্ধ


সকল গোপনীয়তার অন্তত দুটি প্রান্ত থাকে

একজন হারিয়ে গেলে
গল্পটি মৃতদেহের মতো নিস্তব্ধ হয়ে যায়


একটা ব্যক্তিগত বমি নিয়ে জন্মায় সবাই
ঘেন্না করি
মুক্তি পেতে চাই

কিন্তু সবথেকে বেশি কষ্টটা হয় বমি করতেই


গন্ধ আমাকে সবথেকে বেশি শাস্তি দিয়েছে

তার শরীরের সুগন্ধ
তার স্মৃতির দুর্গন্ধ


আমি নিজেকে নার্স ভেবেছি সবসময়

যে অতিযত্নে হাত ধরে নিয়ে যায়
সেই প্রত্যন্ত ভোরে
যেখানে যন্ত্রণা ছাড়া নিজের পায়ে দাঁড়িয়ে থাকে মৃত্যু


বাঘসিংহ বাদ দিলে
জীবনে শুধু জোকার পড়ে থাকে


একজোড়া জুতো পারে
একটা আস্ত মানুষকে লুকিয়ে ফেলতে


আগামী শতাব্দীর সবথেকে বড় আবিষ্কার
একটি শিশুর হাসির আওয়াজ


তোমার দুঃখে কাঁদতে পেরেছি
অথচ সুখে ফুটে উঠিনি কোনোদিন
হয়তো
আলো অপেক্ষা অন্ধকার বেশি জোরে ছোটে

১০
স্মৃতিই একমাত্র চুম্বক
যে মানুষের বয়স কমিয়ে দিতে পারে

One reply on “অনির্বাণ চট্টোপাধ্যায়ের কবিতা”

লেখার ভিতর দর্শনের অদ্ভুত খেলা। বারবার পড়তে ইচ্ছে করছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *