Categories
কবিতা

রাজর্ষি দে’র গুচ্ছকবিতা

কোয়ারেন্টাইন


বদ্ধ সময়ের ইশারা হিলহিলে ছুটে যাচ্ছে
বিষ থেকে ফণার দিকে


দেওয়ালের গণ্ডিতে আটকে আমরা
বিছানার ডাঙাতে আশ্রয় খুঁজছি
দাঁতের সারিতে হাত বুলিয়ে খুঁজছি কুমিরের দাঁতের আভাস


আঙুলের ডগাতে চোঁচ ফুটে আছে
মাংসের ভেতর যত অনুসন্ধান চলছে
ততই গভীরে ডুব দিচ্ছে গাছের ফসিল


ঘড়ির অপেক্ষা এত সুদীর্ঘ হতে পারে,
কারখানার ভোঁ-এর থেকেও কঙ্কাল
সহবাসী স্বর


ঘরে আলো এলে ভয় লাগে
পার্শ্ববর্তী মুখের রেখায় লাগে
কপট মায়া


বৈদ্যুতিন জানালা দিয়ে ছবি ঢোকে ঘরে
শখ ফুরোলে এলবাম বন্ধ হয়
আমরা গুহায় শুয়ে পড়ি


যত ঘুম কমে
আমাদের হাঙরের খিদে পায়,
চিবানোর হাড় খুঁজি


শীত বাড়ে
চেরা জিভ ঘুম খোঁজে

8 replies on “রাজর্ষি দে’র গুচ্ছকবিতা”

তোমার স্বাভাবিক স্বরের থেকে আলাদা এই লেখাগুলো। অনেক বেশি ভাবনা দাবি করছে পাঠকের কাছে। আমার ভালো লেগেছে।

তুমি বেশ কিছুদিন ধরে আমার লেখা পড়েছ, পাঠকের দৃষ্টি থেকে এই মতামতগুলো মূল্যবান। ভালবাসা নিও।

আবার স্বর বদলাচ্ছে। সব টুকরো একটা কবিতার অংশ ধরলে সুন্দর হয়েছে, বলব। তবে সেক্ষেত্রে সংখ্যাগুলোর ক্রম বদলালে ভাল হয়। আসলে টুকরোগুলো সমগ্রের অংশ তো, তাই পরপর এলে শিরোনামকে যথার্থ মর্যাদা দেবে। পুনরায় বলি, স্বর বদলাচ্ছে।এই বদলটাও খুবই ভালো লাগলো।

ভালবাসা নিও। হ্যাঁ, ক্রম নিয়ে আবার ভাবব

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *