Categories
প্রবন্ধ

ফাল্গুনী ঘোষের প্রবন্ধ

ধাঁধার রূপরেখায় আদি মনস্কতা

গোলকধাঁধা শব্দটি সুপরিচিত। একবিংশ শতকের ফ্ল্যাট কালচারের আবহে দাঁড়িয়ে থাকা আমরা প্রাচীন যুগের শ’দুয়ারি ভাঙাচোরা জমিদার বাড়ির মুখোমুখি হলে মনে মনে অনেকেই বলে ফেলি, কি পেল্লায়! একেবারে গোলকধাঁধা। প্রকৃত অর্থেই গোলোকধাম আশ্চর্য এক ধাঁধা। ধাঁধা কখনও ‘রহস্য’ অর্থে, কখনও জটিলতা অর্থে।

Categories
প্রবন্ধ

অমিতাভ মৈত্রর প্রবন্ধ

আত্মপ্রতিকৃতি: পরাবাস্তববাদী নারী শিল্পীদের চোখে

চিত্র: দালি

পরাবাস্তববাদই সম্ভবত প্রথম কোনো গুরুত্বপূর্ণ আন্দোলন যেখানে নারীকে দূরতম কোনো নক্ষত্রের আলোর মতো, প্রেরণা ও পরিত্রাণের মতো, কল্পনার দেবী প্রতিমার মতো পবিত্র এক অবস্থান দেওয়া হয়েছিল। নারী তাদের চোখে একই সাথে পবিত্র কুমারী, দেবদূত আবার একই সাথে মোহিনী জাদুকরী, ইন্দ্রিয় উদ্দীপক ও নিয়তির মতো অপ্রতিরোধ্য।

Categories
প্রবন্ধ

নন্দন সাহার প্রবন্ধ

কাশ্মীর: গণতন্ত্রের উপেক্ষিতা কন্যা

বিগত ৭৩ বছর ধরে ভারতীয় উপমহাদেশের রাজনীতি, অর্থনীতি ও সামাজিক পরিস্থিতিকে ইস্যুটি সবচেয়ে প্রভাবিত করে এসেছে ‘কাশ্মীর’ ইস্যু। দীর্ঘ সময় ধরে কাশ্মীর উপমহাদেশের এক অমীমাংসিত শব্দ যার জন্য ভারত বা পাকিস্তানের অভ্যন্তরীণ নীতি তো ছাড়ুন সার্কের মতো আঞ্চলিক সংঘও সফল হতে পারল না। সম্প্রতি সেই কাশ্মীর বিষয়ে কেন্দ্রীয় সরকারের বিতর্কিত দু’টি সাংবিধানিক অংশ সংশোধন করা নিয়ে পুনরায় কাশ্মীরের উপর বিশ্ববাসীর নজর পড়েছে এবং দক্ষিণ এশিয়ার রাজনৈতিক পরিস্থিতি উত্তপ্ত হয়ে উঠেছে।

Categories
প্রবন্ধ

অনিন্দ্য রায়ের প্রবন্ধ

পাঁচ পঙ্‌ক্তির পৃথিবী

যক্ষ্মা, এই রোগটির খুব প্রিয় কবিদের ফুসফুস, সেখানে বাসা বাঁধে, বেড়ে ওঠে, তৈরি করে নিঃসীম ক্ষত। কত যে কবি ভুগেছেন, ক্ষয়ে গেছেন, প্রয়াত হয়েছেন যক্ষ্মায়!
৮ অক্টোবর, ১৯১৪। নিউইয়র্ক, রোচেস্টার। ৩৬ বছরের এক ভদ্রমহিলা মারা গেলেন এই অসুখে। পরের বছর ম্যানাস প্রেস প্রকাশ করল তাঁর একটি কবিতার বই ‘Verse’.

Categories
প্রবন্ধ

রাহুল ঘোষের প্রবন্ধ

ইসমত চুগতাইয়ের গল্পে নারীদের কথা

উর্দু সাহিত্যের অন্যতম একজন মাইলস্টোন হলেন ইসমত চুগতাই (১৯১৫-৯১)। তাঁর ছ’টি গল্পগ্রন্থ এবং দশটি উপন্যাস রয়েছে। আছে আত্মজীবনীমূলক রচনাও। ইসমত চুগতাই সম্পূর্ণ নিজের প্রচেষ্টায় উচ্চতর শিক্ষালাভ করেছিলেন। তিনি একজন প্রগতিশীল লেখিকা, মেয়েদের ওপর অত্যাচারের কথা তাঁর বহু গল্পে আছে। তৎকালীন সময়ে মেয়েদের নিয়ে লেখালেখি করা সত্যিই ছিল সাহসিকতার পরিচয়।

Categories
প্রবন্ধ

শিবাশিস দত্তের প্রবন্ধ

কবীর সুমনের প্রতিভা : মূল্যায়নের সমস্যা

বিতর্ক যেন পিছু ছাড়ে না। নামের পদবি, চরিত্র নিয়ে খোঁচা তো আছেই, তিনি যে-কথা বলেন তা নিয়েও প্রায়শই কটুকাটব্য চলে। নিন্দুকেরা অধিকাংশই আবার জানাতে ভোলেন না যে, এতদসত্ত্বেও তারা কিন্তু সুমনের গানের ভক্ত। কেউ কেউ আবার পিপিং টমদের মতো বেডরুমে উঁকি মারার ঢঙে নানা কথা ভাবেন— কারণ, Morality-র বিচার তাদের মতে জরুরি। আর কে না জানে, Morality is essentially sexual morality. ‘গানের সুমন’, ‘রাজনীতির সুমন’ ‘মরালিস্‌ট সুমন’—শিল্পী সুমনকে এমন খণ্ড খণ্ড করে দেখার প্রবণতাই সর্বাধিক।

Categories
প্রবন্ধ

মানস শেঠের প্রবন্ধ

‘ডিস্কো’: হারিয়ে যাওয়া সময় ফসিল

তখন বোধহয় ক্লাস সিক্স। থার্ড বেঞ্চে বসে সিঁড়ি ভাঙা অঙ্ক কষতে ব্যস্ত ক্লাসের ফার্স্ট বয়। চক হাতে বিজনবাবু। দুপুরের রোদটা চু-কিত্‌কিত্‌ খেলছে অঙ্কের বইয়ের সঙ্গে। ক্লাসে অঙ্ক পারলে বুকের ভেতর একটা আনন্দ ঠেলে বাইরে বেরিয়ে আসতে চায়। ফার্স্ট বয় ও বা ব্যতিক্রম হবে কেন। সেও অঙ্ক পারার আনন্দে হঠাৎই বলে উঠল ‘পক্যাও’।

Categories
প্রবন্ধ

গৌতম মিত্রের প্রবন্ধ

জীবনানন্দ ও রবীন্দ্রনাথ: দ্বৈরথ

রবীন্দ্রনাথের কাছে জীবনানন্দ দাশ ‘ভিড়ের ভিতর হারিয়ে’ যাওয়া মানুষই হয়তো থেকে গেলেন চিরকাল।
সমসাময়িক আর কোনো কবির ভাগ্যে এতটা অবজ্ঞা জোটেনি। শুধু চিঠির কথাই যদি ধরি, রবীন্দ্রনাথ অমিয় চক্রবর্তীকে চিঠি লিখেছেন ১৩৭, সুধীন্দ্রনাথ দত্তকে ৩৮, বুদ্ধদেব বসুকে ৩৬, বিষ্ণু দে ও সঞ্জয় ভট্টাচার্যকে ৮টি করে। অথচ জীবনানন্দ দাশের কপালে জুটেছে মাত্র ২টি চিঠি, তা-ও যতটুকু না লিখলে ভদ্রতা বজায় রাখা যায় না।

Categories
প্রবন্ধ

শতানীক রায়ের প্রবন্ধ

সমর সেন: bird of passage

অনেক বছর ঘুমিয়ে থাকলাম আর নয়। যে-কাজটা করতে চেয়েছিলাম সমর সেনকে কেন্দ্র করে তা মূল থেকে অনেকটা দূরে সরে গেছে। মাছি মিষ্টির ওপর থেকে অনেকক্ষণ ভন ভন করার পর দূরে বহু দূরে সরে যায় যেমন। তারপর লিখব এই তাগিদ বোধ করলেও নানাভাবে আমার নিজের ব্যক্তিবিভ্রান্তি জুড়ে অগোছালো ভাবনাগুলো এসে বসেছে। বরং বলব এরকম নির্নিমেষ দূরে থাকার ভেতর ফিরে আসার এক অনাবিল আনন্দ আছে।

Categories
কবিতা

প্রবীর মজুমদারের গুচ্ছকবিতা

বাঁশি
এই বর্ষার দিনে ভেসে যেতে যেতে তোমার কথাই শুধু মনে পড়ে যায়। এই তো মাথার উপর ভরসার হাত। তাতে বাংলার ঘ্রাণ লেগে থাকে।